YAMAHA R15 V3,বাংলাদেশের বাইক প্রেমীদের কাছে একটি অবসেশনের নাম।বর্তমানে দেশে এর
দুইটি ভার্সন পাওয়া যাচ্ছে,একটি ইন্ডিয়ান ভার্সন,আরেকটি ইন্দোনেশিয়ান ভার্সন।তো এই দুই ভার্সন এর
মাঝে উল্লেখযোগ্য ডিফারেন্স গুলো কোথায় আসুন দেখে নেয়া যাক-

                                                Yamaha R15 V3 Indonesian

1.Suspension:R15 v3 ইন্ডিয়ান ভার্সনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে টেলিস্কোপিক সাসপেনশন,
যেখানে ইন্দোনেশিয়ান ভার্সনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে USD(Upside Down)সাসপেনশন।

2.Tires:ইন্দো ভার্সনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে IRC টায়ারস,যেখানে ইন্ডিয়ানটিতে ব্যবহার করা
হয়েছে MRFটাইয়ারস,উল্লেখ্য IRC টায়ারস ট্র্যাক রেসিং এর জন্য বেটার।

3.Ground Clearence:ইন্দো ভার্সন এর গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স ১৫৫মি.মি, অন্যদিকে ইন্ডিয়ান ভার্সন
এর গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স ১৭০মি.মি ।

4.Engine Foot Pegs:ইন্ডিয়ান ভার্সন এর ফুটপেগ স্টিলের তৈরী,অন্যদিকে ইন্দো ভার্সন এর ফুট
পেগ অ্যালুমিনিয়াম এর তৈরী।

5.Rear Disk Break Size:ইন্দো ভার্সন এর রিয়ার ডিস্ক ব্রেক সাইজ ২৪০মি.মি যা ইন্ডিয়ান
ভার্সন থেকে ২০ মি.মি বড় ।

6.Front Fender:ইন্ডিয়ান ভার্সন এর ফ্রন্ট ফেন্ডার সস্তা প্লাস্টিক ম্যাটারিয়্যাল এর তৈরী,যেখানে
ইন্দো ভার্সন এর ফ্রন্ট ফেন্ডার বাইকের বডির ম্যাটারিয়াল এর তৈরী যা দেখতে প্রিমিয়াম এবং মজবুত।

7.Torque and Weight:ইন্ডিয়ান ভার্সন এর টর্ক 0.3 NM বেড়ে হয়েছে 15 NM,সাথে এর ওজন
২ কেজি বেড়ে হয়েছে ১৩৯ কেজি।

8.Price:ইন্ডিয়ান ভার্সনটির দাম পড়বে ৪,৬০,০০০ টাকার মতো,যেখানে ইন্দোনেশিয়ান ভার্সন এর
দাম পড়বে ৫,২৫,০০০ টাকা।

                                              Yamaha R15 V3 Indian

দুটো বাইক চালিয়ে আমাদের পার্সোনাল মতামত হচ্ছে এই যে,ইন্ডিয়ান ভার্সনটির চেয়ে ইন্দোনেশিয়ান ভার্সন
টি বেশি ভালো।ইন্দোনেশিয়ান ভার্সন এর ব্রেক এবং পারফরম্যান্স ছিলো স্মুথ,যেখানে ইন্ডিয়ান ভার্সন এর
পারফরম্যান্স আমাদের কাছে ওয়েল সিঙ্ক্রোনাইজড মনে হয়নি,এবং ব্রেকিং আমাদের কাছে ইন্দো ভার্সন এর টা
বেটার মনে হয়েছে।ওভারঅল আমাদের সাজেশন থাকবে ইন্দোনেশিয়ান ভার্সনটা নেয়ার।
এইগেলো আমাদের মতামত,বাইক দুইটি সম্পর্কে আপনাদের মতামত জানাতে ভুলবেন না।।